উইন্ডিজকে গুঁড়িয়ে দিলেন কোহলি-রোহিত

স্পোর্টস >>শিমরন হেটমায়ারের আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে প্রত্যাশার চেয়েও বেশি রান করেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ- ৩২২ রান। কিন্তু এই রানকেও ছেলেখেলা করল ভারত। গৌহাটিতে অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মার সেঞ্চুরি ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ভারতকে এনে দিলো দারুণ শুরু।

 

রবিবার প্রথম ওয়ানডেতে ৪৭ বল হাতে রেখে ৮ উইকেটে জিতেছে ভারত। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেটে ৩২২ রান করে উইন্ডিজ। ৪২.১ ওভারে ভারত ২ উইকেটে করে ৩২৬ রান।

 

ফিল্ডিং নিয়ে ১৯ রানে ক্যারিবিয়ানদের প্রথম জুটি ভাঙে ভারত। তবে কিয়েরন পাওয়েল ও শাই হোপের ৬৫ রানের জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায় সফরকারীরা। পাওয়েল ৫১ রানে বিদায় নেওয়ার পর আবার ভেঙে পড়ে তাদের ব্যাটিং লাইন।

 

হোপ ৩২ রানে আউট হলে রভম্যান পাওয়েলের সঙ্গে হেটমায়ারের ৭৪ রানের জুটি স্বস্তি ফেরায়। জেসন হোল্ডারের সঙ্গে আরেকটি পঞ্চাশ ছাড়ানো জুটি গড়ার পথে তৃতীয় সেঞ্চুরি করেন হেটমায়ার। দলকে ২৪৮ রানে রেখে বিদায় নেন তিনি। মাত্র ৭৮ বলে ৬টি করে চার ও ছয়ে ১০৬ রান করেন এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

 

হোল্ডারের ৩৮ রানে বিদায়ের পর কেমার রোচ ও দেবেন্দ্র বিশুর ৪৪ রানের অপরাজিত জুটিতে তিনশ ছাড়িয়ে যায় উইন্ডিজ।

 

ম্যাচের আগে এই উইকেটে দলের কাছে তিনশ রানের প্রত্যাশা করেছিলেন হোল্ডার। অধিনায়কের প্রত্যাশার চেয়েও ২২ রান বেশি করে উইন্ডিজ। ১০ রানে ভারতের ওপেনার শিখর ধাওয়ানকে ফিরিয়ে ভালো শুরু করেছিল তারা।

 

কিন্তু রোহিত ও কোহলির ২৪৬ রানের অনবদ্য জুটিতে ক্যারিবিয়ানদের সব স্বপ্ন গুঁড়িয়ে দেয় ভারত। মাত্র ৮৮ বলে ১৬ চারে ৩৬তম সেঞ্চুরি আসে অধিনায়কের ব্যাট থেকে। দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেননি কোহলি। ১০৭ বলে ২১ চার ও ২ ছয়ে ১৪০ রান করে বিশুর শিকার হন তিনি।

 

আম্বাতি রাইডুকে নিয়ে বাকি পথ পাড়ি দেন রোহিত। ৮৪ বলে ১০ চার ও ৫ ছয়ে ২০তম সেঞ্চুরির দেখা পান তিনি। তার অপরাজিত ১৫২ রানের ইনিংস সাজানো ছিল ১৫ চার ও ৮ ছয়ে, মাত্র ১১৭ বল খেলেন। অন্য প্রান্তে ২২ রানে খেলছিলেন রাইডু। তাদের জুটিটি ছিল ৭০ রানের।

 

ম্যাচসেরা হয়েছেন কোহলি। আর ৮১ রান করলেই পঞ্চম ভারতীয় হিসেবে ওয়ানডেতে ১০ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করবেন তিনি।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *