ঈদ উপলক্ষে প্রতিদিন ৭ হাজার ভিসা দিচ্ছে ভারত

ঢাকা:
ঈদের আনন্দ মানেই কেনাকাটা-ভ্রমণ। কেনাকাটার পাশাপাশি এখন প্রচুর সংখ্যক মানুষ ঈদের ছুটিতে ভ্রমণ করতে পছন্দ করেন। আর তালিকার প্রথম দিকেই থাকে পাশের বন্ধুপ্রতীম দেশ ভারত। বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে প্রতিদিন ভিসার সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ করেছে ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশন।

ঈদ সামনে রেখে রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক সংলগ্ন যমুনা ফিউচার পার্কের নতুন ভিসা সেন্টার থেকে প্রতিদিন সাত হাজারের বেশি ভিসা দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে হাইকমিশন সূত্র।

হাইকমিশনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বাংলানিউজকে জানান, ঈদে বাংলাদেশিদের ভারত ভ্রমণ সহজ করতে প্রতিদিন সাত হাজারের বেশি ভিসা ইস্যু করা হচ্ছে। ঢাকার বাইরেরগুলো ধরলে এ সংখ্যা আরও দুই-তিন হাজার বাড়বে। অন্য সময় এ সংখ্যা থাকে চার হাজারের মতো।

জুলাই মাসের মাঝামাঝি সময়ে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং ঢাকা সফরের সময় ফিউচার পার্কে নতুন আঙ্গিকে সুন্দর নির্মল পরিবেশে ভিসা সেন্টার উদ্বোধন করেন।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, নতুন ভিসা কেন্দ্র চালুর পর ভিসাপ্রত্যাশীদের সংখ্যা বাড়ার পাশাপাশি হাইকমিশনের সক্ষমতাও বেড়েছে। আর সুন্দর পরিবেশে সুশৃঙ্খলভাবে ভিসা পাওয়ায় ভিসাপ্রত্যাশীদের সংখ্যাও বেড়েছে।

প্রতিবছর ঈদ সামনে রেখে বাংলাদেশ থেকে প্রচুর সংখ্যক মানুষ কেনাকাটা করতে ভারতে যান। আবার অনেকে ঈদের ছুটিতে বেড়াতে যান দেশটির বিভিন্ন প্রদেশে। ছুটিতে চিকিৎসার জন্য ভারতে যাওয়ার বাংলাদেশির সংখ্যাও নিতান্ত কম নয়।

বন্ধুপ্রতীম দুই দেশের পারস্পরিক সহযোগিতা ও সম্পর্ক বাড়াতে বর্তমান হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা প্রথম থেকেই দুই রাষ্ট্রপ্রধানের মতো আন্তরিক। এক সময় অনেক জটিল হয়ে ওঠা ভিসা প্রক্রিয়াও অনেক সহজ সাবলীল করতে তার ভূমিকা অপরিসীম।

গত কয়েক বছর ধরে হাইকমিশনারের ঐকান্তিক সদিচ্ছায় ঈদ সামনে রেখে ভিসার সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে। একবার বিশেষ ব্যবস্থাও করেন তিনি। চলতি বছর সেই আন্তরিকতায় এযাবতকালের সর্বোচ্চ সংখ্যক ভিসা পাচ্ছে বাংলাদেশিরা।

Please follow and like us:
RSS
Facebook
Facebook
Google+
http://sangbadkantho.com/2018/08/%e0%a6%88%e0%a6%a6-%e0%a6%89%e0%a6%aa%e0%a6%b2%e0%a6%95%e0%a7%8d%e0%a6%b7%e0%a7%87-%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%a4%e0%a6%bf%e0%a6%a6%e0%a6%bf%e0%a6%a8-%e0%a7%ad-%e0%a6%b9%e0%a6%be%e0%a6%9c/
Twitter

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *